Sunday, 1 August 2021


        Editor. Nihar Ranjan Das

        Siliguri. Darjeeling. India



🌹🌹🌹🌹🌹🌹🌹🌹🌹🌹🌹🌹🌹

Dr. H.C. Valda
( Brazil )

IT'S YOU WHO PAYS THE DISH AND THE BILL(*)


History no longer digests the banquets of wars.
There is no lack of hungry people at these banquets,
Someone paid the price, but it didn't cost him so dearly;

Need to redo this bill.
What a way to get the dishes off the table,
Dirty with corpses! It is not alright.

Someone needed to be more inventive,
Someone has to serve the most sophisticated dish,
In the spring of the gluttons...

 On a glass slide there is a sample of the dessert,
Someone should taste it before serving it.
To avoid material losses, push the human down.

Reduce final cost, wipe inactive mesh with corona 19.
Doors close to everyone, windows will open to many;
Masks are adornments that do not reduce casualties.

We don't even have pictures worth taking,
All cameras went back to this war innovation,
Instead of warheads they launch test tubes.

Now let's save bridges and train stations,
Airplanes, submarines, freighters...
Now they will tear the flags, replace with other colors.

The ditches collectively filled, flooded
 By the silenced tears. They think they are great.
 God has a bill, someone has to pay the damage...

"Shall i give you my peace?"
Man will sleep the sleep of the righteous
When peace will be your pillow

*(The entire composition of this poem is rich in metaphors and implied meaning, for this reason Google translator's automatic translation harms the beauty and understanding of the literal meaning of the poem)
                          -----
Glenda Uriarte Adobo
 ( Philippines )

find me

I'm still looking for you day by day
I've been looking for you until today
Hey, where are you hiding?
I'm still waiting, are you good...

twenty-eight springs is still lonely
Friends of the same age have become a couple
I am alone forever in love.
come here where you are.

I've been waiting for you all day.
The autumn wind gently blows the yellow leaves
why don't you come and wait for me
promised many times still empty-handed.. !

I was very sad to see this afternoon.
Who are you with hand in hand happily.
Let me be sad to stand on the side of the road quietly.
Tears fall silently waiting for the lover

why did i see you, i turned my face away
the old bee and butterfly words accidentally flew with the wind
Now you have a sweet time with someone
I return to the small road of the past,

It's painful, I don't know what to say
Lover's fortune donkey sow delusions.
I did not expect my heart to go astray.
so that now the corner of my eye tears silently...
---------------------------------------------------
সুনীতা 

ম্যাকাভিটি’র ছায়ামুক্ত সাদাকালো বেড়াল



শৈশবে প্রথমবার দেখা সাদাকালো বেড়ালের
অভিজ্ঞতা এককথায় ভিন্টেজগোত্রীয়,
দীর্ঘ পথ পেরিয়েও স্মৃতিতে জেগে থাকে ।
পাঁচিলের ওপর হেঁটে যাওয়া বেড়ালের সাথে
 দেখা হয়েছিল অনেক পরে,
আরও অনেক পরে।
আদিতম সাদাকালো বেড়ালটি ছিল আধ-পোষা,
তার সাথে প্রথম পরিচয় মাছের সূত্র ধরে:
আধ-পোষা বেড়ালরাও কখনো কখনো আনন্দের আতিশয্যে 
বা স্বভাবদোষে এক-আধ টুকরো মাছ 
মুখে নিয়ে নেয় নিজের মনে করে।
এমনও হতে পারে, আধ-পোষা বেড়ালরা জানেই না যে
সাদাকালো, পায়ে-পায়ে ঘোরা বেড়ালদের জন্য
আলাদা বরাদ্দ কোন মাছ থাকে না
যা চাইলেই আঁশ ছাড়ানোর মুহূর্তে
মুখে তুলে নিয়ে চলে যাওয়া যায় ;
সেদিনের ঘটনার সূত্রও ঐ মাছের টুকরো
যা মুখে নিয়ে সে স্বভাব আদুরে ভঙ্গিতে
হেলতে-দুলতে চলে যাচ্ছিল- উঠোন পেরিয়ে
মাছ কাটতে বসা মা ও তার আঁষ-বটি ছাড়িয়ে  আরো দূরে।

সেই মাছ সাদাকালো বেড়ালের মুখ থেকে 
কেড়ে নেওয়া যায়নি। কারণ বেড়ালটি অজান্তে 
পরিবারের অন্যতম সদস্য হিসেবে
তার ভাগে কামড় বসিয়েছিল। ভেবেছিল,
এইসব মাছের টুকরো অধিকন্তু বেড়ালভোগ্য।
তারপর যা হল- সব আদুরে, মাছখেকো, মাছচোর
বেড়ালরা একমাত্র সাদাকালো রঙের হয়ে গেল;
ছোট রচনা পেরিয়ে পূর্ণদৈর্ঘ্য বাক্যবিন্যাসে ঢুকে বসল
আদর খাওয়ার পর লেপের ওপর পরিত্যক্ত
সাদাকালো লোম ছড়িয়ে রেখে গেল
---------------------------------------------------
                  অমলেন্দু কর্মকার

      ‘সংজ্ঞা’ হারান ভগবান
 

   ভারত কোথায় এগিয়ে গেছে 
   বিজ্ঞান আজ চাঁদ ছুঁয়েছে 
   কদিন পরে ফ্ল্যাট বানাবে  হয় চাঁদে, নয়        মঙ্গলে । 

    তবুও সবার লজ্জা বাড়ে
    অশ্লীলতা এক নাগাড়ে 
    দৃশ্য দূষণ, বচন  শুনে   ভাবছি আছি          জঙ্গলে । 

    কীসের তবে এ সভ্যতা ?
    নোংরামি আর অভব্যতা 
    প্রতিদিন’ই যাচ্ছে বেড়ে   নির্যাতন আর        অসম্মান ! 

    হায়রে আমার বঙ্গমাতা,
    শিলায় খুঁজিস প্রেম-মমতা 
    অশ্লীলতার সংজ্ঞা দেখেই 
    ‘সংজ্ঞা’ হারান  ভগবান ।
---------------------------------------------------
           Madhu Gangopadhyay 

The Rendezvous

The night crawled up to spread its wings
The ivory moon still in its dreams refused to adorn the Stygian fringe!
As the  nacreous clouds in its crimps the queen of the night beheld!
On the sequined ebony vault the wooly clouds languorously sailed!
They swayed and waltz! Diana too, along with them   hiding in her veil!
The autumn air wafted with the jasmine scent!
The boughs of  Laburnum tree with profusion seemed to  bent!
That evening two lovelorn souls to eternity wanted to flee
 On that placid river's  bosom  when the stars sprinted  in glee!
 Under the peepal tree their last amorous meet; Locked in each others arms, engaged in a passionate kiss!
A night bird flapped  its wings, an Eavesdropper  of some  kind;
Took its flight into the sky, the lovers evermore entwined!
By now the Zephyrs made melody
Through the folds of the trees ঞand leaves
The dewdrops added to the symphony 
With their dripping music that autumn eve!
Then as if from the chasm of the clouds out serenaded the moon
As Diana caught their secret rendezvous
Their love attained eternity soon! 
As they admired the queen of love;
The poet's  muse at sight
Their heavy heart flooded with nitid moonbeams
As moon calls on a moonless night!
-------------------------------------------------
 Rupa Chatterjee

Time .....

Time waits, vacant
The faith transfigures;
We gather dreams of love
And wrap them with 
Rainbows !
Vainly the Space and Time,
Heart of hearts,
Mind of minds,
We all alone sit,
Sublime .
---------------------------------------------------

It is information to all our dear poets and writers , that we are going to publish   Ghorsowar  e book magazine very soon . So it is our request to You that you may send  Your Poems  (2 nos), Short Stories  ( 2 nos within 100 words),  with your biography , by 7/8/21 . Through the   e-mail id mantioned below.   Do not send any docs or pdf files pls.
Thanking you 🙏
dasniharranjan770@gmail.com
প্রকাশিত হচ্ছে ঘোড়সওয়ার  
e book magazine. আপনার কবিতা ( ২০লাইনের মধ্যে ) , অণু কবিতা ৪টি ( ৬ লাইনের মধ্যে ) অণুগল্প ( ১০০শব্দের মধ্যে), এবং কাব্যগ্রন্থের পর্যালোচনা ।
পাঠাতে হবে আগামী ৭/৮/২১ তারিখের মধ্যে । নিচের ই মেইল আইডিতে । বানান , লাইন , এইগুলা দেখে পাঠাবেন , কোনো ধরণের আঁকাআঁকি করে সাজিয়ে পাঠাবেন না । কোনো ডক্ বা পিডিএফ ফাইল পাঠাবেন না । মেইলবডিতে টাইপ করে লেখা পাঠাবেন । ছবি লেখার সাথে‌ মেইল করবেন না । আলাদা করে ছবি মেইল করবেন।
dasniharranjan770@gmail.com

Editor . 
Nihar Ranjan Das .
Co ordinator.
Smita Gupta Biswas
Anamika Sarkar
Subrata Roy Choudhury.
--------------------------------------------------
                       শেখর কর

অপেক্ষা

গভীর আশ্বাসের বিনিময়ে
সবুরের ফল মিঠে
নইলে কে দেবে ফিরিয়ে 
নষ্টপ্রহরের  ক্ষতিপূরণ !
#
ভাগশেষে অবশিষ্ট 
কিছু  তো থাকা চাই বাকি  
#
নিষ্ফলা অপেক্ষাই জীবন নাকি !
----------------------------------------------------


                    নীহার রঞ্জন দাস
লিখতে গিয়ে ...

বর্ণমালা আত্মস্থ করতে করতেই
শিয়রের পাশে বাসা বাঁধে আয়ু।
এগারো মিনিট তোমাকে দেখতে দেখতে , বারো মিনিটের গোড়ায় শুরু করলাম কবিতা , এমন এগারো মিনিট বা, এগারো হাজার মিনিট কতোই না আমরা অপচয় করেছি , যত বেশি অপচয় তত বেশি বেহাগী আল্পনা এঁকে দেওয়া যায় , এটাই অঙ্ক ধরে নিতে পারো , বাকি সব দুধজল।
কথামৃত পড়ে দেখেছি রাজহংস সবাই নয় । এগারো মিনিটে নয়টি দরজা অনায়াসে বন্ধ হয় । কালের স্রোতে এতটা বৈভব চাইনি বলেই এখনো নির্বিকার বলতে‌ পারি , এসো ঢেলে দিই অগ্নিকুন্ডে আহুতি , নীল হোক জীবন রহস্য । যদিও আগুনের রঙ 
নীল নয় , বিস্ময় তো বলতেই পারো ।
----------------------------------------------------
                       কাঞ্চন রায়


কর্পোরেট ইলুমিনাতি 

বাড়ি ফেরার রাস্তা ধরতেই ফিকে হয়ে আসে—
ঝাঁ চকচকে অফিস, গ্লাস মার্বেলের সৌষ্ঠব ;
ল‍্যাপটপ আধলা ইট হয়ে ঝুলতে থাকে দামি
কোম্পানির বোঁচকাতে... 

এয়ার কন্ডিশনের শীতল বাতাস ষোলো আনা 
ঠিক উসুল করে নেয় ফিরতি ট্রেনের কামরা।
টিফিন বাক্স সমান আকাশ কুড়িয়ে, জবজবে ঘাম
মুখে তুলে নেয় নিয়ম মাফিক 'রমনের বিষাদ'! 

ওধারে নির্জীব রাত্রিটুকু— ঘুমের ছুতো;
আমরা ইট চাপা হয়ে পড়ে থাকি বিছানাময়! 

কর্পোরেট ইনফ‍্যাচুয়েশনের ক্লোরোফর্ম  
আধুনিক ড্রেস কোডের স্মারক, বুকের ওপর ঝুলিয়ে রেখে
বারো ঘন্টা ইলুমিনাতিতে বেঁচে থাকে অগ্নিবাণ... 
----------------------------------------------------



No comments:

Post a Comment