Saturday, 14 August 2021

স্বাধীনতা দিবস মানেই একটা কনসেপ্ট নয় ..

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে 
ছবি ও কবিতায়

একটি কোলাজ 


 🇮🇳🌹🇮🇳🌹🇮🇳🌹🇮🇳🌹🇮🇳🌹🇮🇳🌹🇮🇳

"    তোমার আকাশে ফ্যাকাশে প্রেত           আলো
     বুনো পাহাড়ে মৃদু- ধোঁয়ার                       অবগুণ্ঠন :
     ও কিছু নয় , হয়তো নতুন এক                 মেঘদূত।
     উৎসব কর, উৎসব কর ---"
  " নক্ষত্রপুঞ্জের মতো জ্বলজ্বলে                  পতাকা উড়িয়ে আছো আমার সত্তায় ।
     মমতা নামের প্লুত প্রদেশের শ্যামলিমা
     তোমাকে নিবিড় ঘিরে রয় সর্বদাই "
  " তুমি আসো আমার ঘুমের বাগানেও "
  " তোমাকে উপড়ে নিলে , বলো তবে ,         কী থাকে আমার .."
"  তবে ব্যর্থ হোক সব । উৎসব উজ্জ্বল        রজনীর সমস্ত সংগীত তবে কেড়ে            নাও,নিত্য- সহচর ব্যর্থবীর্য শয়তানের      আবির্ভাব হোক । 
    তারপর পাতালের সর্বনাশা অন্ধকার        গাঢ় হয়ে এলে দৃঢ় হাতে টেনে দাও            যবনিকা । নির্মম অস্থির পদক্ষেপে          ‌‌  আনো ভয় , বিস্বাদ বেদনা ঢেলে দাও      ঢালো গ্লানি , ঢালো মৃত্যু ,
   শিল্পীর বেহালা ভেঙে ফেলে 
   অন্ধকার রঙ্গমঞ্চে অট্টহাসি 
   দু হাতে ছডাও .."




"   এ কোন্ দেশ ?
    মৃত্যু তার স্খলিত অঞ্চল ঢালে                  দয়িতমুখে
    শিশু তার জন্যে পায় দুর্বল দুয়ারে       ‌‌      হাহাকার 
ক্ষীণকায় শিবিরের বজ্র আলিঙ্গনে
 ‌‌   হুতাশী জনসঙ্ঘের গুরুসংখ্যা --
    মৃত্যু তার স্খলিত অঞ্চল ঢালে                  দয়িতমুখে
আমার রাত্রি আমার দিন তার কটাক্ষে
 বিপন্ন দয়িত 
   
এ কোন্ দেশ
.."
" পিতামহ , তোমার আকাশ
  নীল -- কতখানি নীল ছিল ?
  আমার আকাশ নীল নয় ।
  পিতামহ , তোমার হৃদয়
  নীল -- কতখানি নীল ছিল ?
  আমার হৃদয় নীল নয়।
 আকাশের , হৃদয়ের যাবতীয় বিখ্যাত
 নীলিমা ,
 আপাতত কোনো এক স্থির অন্ধকারে 
 শুয়ে আছে ..."
"ভারতবর্ষে পাথরের গুরুভার
 ‌ এহেন অবস্থাকেই পাষাণ বলো
  প্রস্তরীভূত দেশের নীরবতার
  একফোঁটা নেই অশ্রুও সম্বলও "
তোমাদের ভাষণ আমাদের ভাতঘুম
কেড়ে নেয় ... তোমাদের লাঞ্ছনা বুকের শিরায় চিরুনি চালায় .... তোমরা আমাদের ফানুস ভেবে বাতাসে নাচাও
আমরা তোমাদের সাজানো ধর্ম  চাইনা
আমরা শিল্প চাই , শিল্পী চাই , শিক্ষা চাই


মন্দির নয় , মসজিদ , গির্জা নয় 
আমরা শুধু মানুষের কথা বলতে চাই 



আমি আলতো হাতে স্পর্শ করে দেখেছি 
বাইবেলের প্রতিটি পাতায় এক একটা ‌গোলাপ ফুটে আছে ।

আমি নরম হাতে স্পর্শ করে দেখেছি ,
কোরানের পৃষ্ঠায় লেগে আছে
মানুষের নাম ।

আমি তরল হাতে ছুঁয়ে দেখেছি
উপনিষদ 
সবটাতেই জীবন উপাখ্যান ।

তারপর অনেকবার জলের কাছে গিয়ে বলেছি
বড় তৃষ্ণা এ জীবনের
বহুবার বৃষ্টিতে মেঘ হাতে নিয়ে দেখেছি
কোথাও কোনো ধর্ম নেই
কেবল অসহায় মানুষের মুখ ।

" কারা যেন এসেছিল শপথে শপথে
  রক্তঝরা অলিগলি, ক্ষুব্ধ পথে পথে
  কারা যেন ভাঙা বুকে মন্ত্র দিয়েছিল
  তাহারা কোথায়
  তাহারা কোথায় .."
" এবার তোর মরা গাঙে বান এসেছে
   জয় মা বলে ভাসা তরী ..."

" ও আমার দেশের মাটি , 
                ‌‌ তোমার 'পরে ঠেকাই মাথা .."

" আমাদের যাত্রা হল শুরু এখন
               ওগো কর্ণধার 
       তোমারে করি নমস্কার ..."

" দেশ দেশ নন্দিত করি তবে ভেরী
   আসিল যত বীরবৃন্দ আসন তব ঘেরি "
"
যারা তব শক্তি লভিল 
   নিজ অন্তরমাঝে
   বর্জিল ভয়, অর্জিল জয়, 
   সার্থক হল কাজে ... " 

" বীরধর্মে পূণ্যকর্মে বিশ্বহৃদয়ে রাজ হে "
" আনন্দধ্বনি জাগাও গগনে
   কে আছো জাগিয়া পূরবে চাহিয়া .."
" এখন আর দেরি নয় , 
   ধর গো তোরা হাতে হাত ধর গো "
🇮🇳🌹🇮🇳🌹🇮🇳🌹🇮🇳🌹🇮🇳🌹🇮🇳🌹🇮🇳                    

         ‌         আমার দেশ 

আমার দেশ। সে কী শুধুই একটা 'কনসেপ্ট'? একটুকরো মানচিত্র? কিছু উঁচুনীচু মাটি, জলহাওয়া আর ত্রিবর্ণরঞ্জিত একটি পতাকা? আমার কাছে আমার দেশ অর্থ এ দেশের প্রত্যেকটি মানুষ। হ্যাঁ, দেবত্ব, মনুষ্যত্ব এবং কখনো কখনো পিশাচত্ব দিয়ে গড়া এক একটি মানুষ, যাদের হৃদয় আছে, হৃদয়হীনতাও আছে, আদর্শ আছে, আদর্শচ্যুতি আছে, উথ্থান আছে, পতনও আছে, যাদের অতীতের কলঙ্ক আছে, আবার ভবিষ্যতের উজ্জ্বল প্রতিশ্রুতিময় আশাভরসাও আছে।আমার দেশবাসী অনেক হারিয়েছে, অনেক লড়াই করেছে, অনেক সয়েছে আবার অনেক পেয়েওছে। কিন্তু সবার উপরে মনুষ্যত্ব, মানুষের দাবি। সেখানে হারলে চলবে না। আজ আমরা স্বাধীনতা, দেশপ্রেম নিয়ে ব্যস্ত। কিন্তু ক'জন নিঃস্বার্থ এবং নিঃশর্তভাবে দেশের মানুষগুলোর কল্যাণচেষ্টায় নিমগ্ন আছি? সমস্যা সমস্যা করে বিবিধ সমালোচনায় সরব হয়ে আছি, কিন্তু কতজন সেই অন্ধকারকে পরিশোধিত করে আলোয় নিয়ে আসার প্রকৃত চেষ্টা করছি??বিদেশীরা তো চলে গেছে, কিন্তু পারস্পরিক বিদ্বেষ,ঘৃণা, অবিশ্বাস আর চরম স্বার্থচিন্তা থেকে আমরা মুক্ত, স্বাধীন হ'তে পেরেছি কী?

আজ আমরা পথভ্রষ্ট, দিকভ্রান্ত; কিন্তু তার মানে এই নয়, যে আলোয় ফেরা যাবে না। এদেশের প্রতিটি প্রাণ আমার পরমাত্মীয়, তাদের দুঃখবেদনা,মান-অপমান, অসহায়তা, অবনমন, উন্নয়ন, স্বপ্ন-দুঃস্বপ্ন-সব আমার, ভ্রান্তিশীল প্রতিটি সত্তার সমালোচনার নয়, ভ্রান্তি-সংশোধনের দায় আমার, তাদের কল্যাণচিন্তার দায় আমার....যেদিন এইভাবে আমরা প্রত্যেকে ভাবতে শিখব, অনুভব করতে পারব, সেদিনই প্রকৃত সার্থকতা এ স্বাধীনতার। স্বাধীন হবে অন্তঃকরণ, সব ম্লানিমা, সব দীনতা থেকে।
     ( শাশ্বতী চ্যাটার্জী )
মানুষের অন্তর্লীন ঈশ্বরত্বে আমি বিশ্বাস করি, সে সুপ্ত থাকতে পারে, 
কিন্তু মৃত নয়। আলোঅন্ধকারের সহাবস্থান অবশ্যম্ভাবী, তার মধ্যে থেকে জ্যোতির্ময়ত্বে উদ্বোধিত হওয়াই প্রকৃত শিক্ষা। দুর্বলতা সাময়িক, সততা,সুশক্তি সুবুদ্ধি চিরকালীন; সে আছে; থাকবে। শুধু সেই আলোকিত গোলার্ধের অভিমুখী হ'তে হবে। আজকের উৎসব যেন শুধু বাহ্যিক আড়ম্বরে পর্যবসিত না হয়, এ যেন প্রতিটি ভারতীয়ের প্রতি প্রতিটি ভারতীয়ের দায়বদ্ধতার অঙ্গীকারের উৎসব হ'য়ে ওঠে ।          
🌹🙏🌹🙏🌹🙏🌹🙏🌹🙏🌹🙏🌹

মুক্তি

যদি পারো  মানুষ কে আরো একটু বেশি করে  "মানুষ" ভেবো,অন্য কিছু না ভেবে! যদি পারো  আরও এক টু বেশি ঢেলো  সম্মান  সম্পর্কে...
যদি পারো  বিনি সুতোয় গেঁথো  বিশ্বাস, পারলে সামান্য ছিঁটিয়ে দিও বেল ফুলের গন্ধ...যদি পারো  যে- আচরণগুলো  অন্যের তীব্র ব্যথার কারণ,  দুম করেই একদিন  লং-ড্রাইভে গিয়ে দূরের কোনও ঝিলে ভাসিয়ে দিও অসংযত  যা-কিছু..
  যদি পারো  বাড়িয়ে দাও তোমার বিস্তৃত দু'হাত....মানুষ ও প্রকৃতির দিকে...
       মনোনীতা চক্রবর্তী

যদি পারো  জলের কাছে চিরতরে জমা রেখে এসো ছল...
সব... সব কিছু  স্বেচ্ছায়  দিলেই হয়তো
ঠিক একদিন খুব ভোরের আগেই
আহির ভৈরব  গাইতে-গাইতে
দরজায় কড়া নাড়বে
স্বাধীনতা

তোমার
আমার
আমাদের...

ভালো থেকো  স্বাধীনতা, তোমার মতো করেই...
"এই আকাশে আমার মুক্তি আলোয় আলোয়..'

সমাপ্ত 










No comments:

Post a Comment